Sukanya Samriddhi Yojana: কন্যা সন্তানের ভবিষ্যত সুরক্ষায় কেন্দ্রীয় সরকারের দুর্দান্ত স্কিম! সন্তানের জন্মের পর বিনিয়োগ করুন আর রিটার্ন পান ৭০ লাখ টাকা

Sukanya Samriddhi Yojana: কেন্দ্রীয় সরকার দেশের জনসাধারণের জন্য বেশ কিছু প্রকল্পের সূচনা করেছে। সন্তানের ভবিষ্যত সুরক্ষায় কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে চালু হওয়া একটি উল্লেখযোগ্য স্কিম হলো ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’ (Sukanya Samriddhi Yojana বা SSY)। কেন্দ্রীয় সরকারের এই প্রকল্পটি অত্যন্ত জনপ্রিয়।

বাবা-মায়েরা তাঁদের কন্যা সন্তানের জন্য এই স্কিমে বিনিয়োগ করেন ও মেয়াদ শেষে ভালো রিটার্ন পান। এই টাকায় কন্যা সন্তানের উচ্চশিক্ষা, তাঁর বিবাহ নিয়ে অভিভাবকের যাবতীয় চিন্তা দূর হয়কিভাবে এই স্কিমে বিনিয়োগ করা যাবে, আবেদন পদ্ধতি কী? কত রিটার্ন মেলে? বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হল আজকের প্রতিবেদনে। 

সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা (SSY) স্কিমটি কী?

ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কন্যা সন্তানের কল্যাণ স্বার্থে ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা‘ (Sukanya Samriddhi Yojana) স্কিমটি চালু করেন। কয়েক বছরের মধ্যেই এই স্কিমটি ভারতে বিশেষ জনপ্রিয় হয়েছে। অনেক অভিভাবক তাঁদের সন্তানের জন্য বিনিয়োগ করছেন এবং তাঁদের ভবিষ্যত সুরক্ষিত করছেন। এই স্কিমে উচ্চ হারে সুদ মেলে। একজন বিনিয়োগকারী প্রায় ৭০ লক্ষ টাকা পেতে পারেন এই প্রকল্পে বিনিয়োগ করে। আসুন এই যোজনার বিনিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনায় (SSY) যোগ্যতা ও সুবিধা?

কেন্দ্রীয় সরকারের জনপ্রিয় স্কিম ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনায়’ একজন কন্যা সন্তানের পিতা-মাতা ও অভিভাবক বিনিয়োগ করতে পারেন। কন্যা সন্তান জন্মের পর তাঁর দশ বছর হলে স্কিমে বিনিয়োগ করা যায় আর কন্যা সন্তান প্রাপ্তবয়স্ক হলে যথা মেয়ের বয়স ২১ বছর হলে তুলে নেওয়া সম্ভব। তবে মেয়ের শিক্ষার জন্য অ্যাকাউন্টে জমা থাকা ব্যালেন্সের ৫০ শতাংশ তুলতে পারবেন। তবে সেক্ষেত্রে উপযুক্ত প্রমাণ দেখাতে হবে। এই স্কিমে সুদের হার আট শতাংশেরও বেশি। জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত এই প্রকল্পে ৮.২ শতাংশ সুদ দেওয়া হচ্ছে। তবে তিন মাস অন্তর অন্তর সুদের হার বদল করা হয়।

সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনায় কিভাবে ৭০ লক্ষ টাকা পাওয়া সম্ভব?

একটি রিপোর্ট দেখে বলা যায়, একজন অভিভাবক যদি তাঁর পাঁচ বছর বয়সী কন্যা সন্তানের জন্য SSY অ্যাকাউন্ট খোলেন ও প্রতিবছর এখানে ১.৫ (দেড়) লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেন, তবে কন্যার বয়স ২১ বছর হলে সুদ মিলিয়ে সেই টাকার পরিমাণ দাঁড়ায় প্রায় ৬৯ লক্ষ টাকারও বেশি। অর্থাৎ পনেরো বছর দেড় লাখ টাকা বিনিয়োগ করলে একুশ বছর হতে মোট টাকার পরিমাণ হয় ২২ লক্ষ ৫০ হাজার। এর সঙ্গে যদি যুক্ত হয় ৮.২ শতাংশ হারে সুদ, তবে মোট টাকার পরিমাণ হবে ৬৯ লক্ষ ২৭ হাজার ৫৭৮ টাকা। অর্থাৎ বুঝতেই পারছেন, এই স্কিমে টাকা বিনিয়োগ করলে কতটা লাভবান হবেন।

সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনার জন্য কীভাবে আবেদন করতে হবে?

বিনিয়োগকারীরা পোস্ট অফিস বা সরকারি ও বেসরকারি ব্যাঙ্কে গিয়ে সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনার জন্য আবেদন করতে পারেন। বিনিয়োগকারীদের কিছু নথির আসল এবং জেরক্স কপি সঙ্গে করে নিজ্যে যেতে হবে। এরপর এই স্কিমের আবেদন ফর্ম (FORM – 1) সংগ্রহ করে আবেদন ফর্মটি সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। সঙ্গে সমস্ত প্রয়োজনীয় নথিগুলি যুক্ত করে জমা করতে হবে পোস্ট অফিস বা সরকারি ও বেসরকারি ব্যাঙ্কে।

প্রয়োজনীয় নথিগুলি

  • কন্যা সন্তানের জন্ম সার্টিফিকেট।
  • আবেদনকারীর পিতামাতা বা আইনি অভিভাবকের ঠিকানার প্রমাণপত্র।
  • আবেদনকারীর পিতামাতা বা আইনি অভিভাবকের পরিচয়পত্র।
  • এছাড়াও অন্যান্য নথি প্রয়োজনে চাওয়া হতে পারে।

আরও পড়ুন – PM SURAJ Portal – মোদী সরকারের নতুন স্কিম, ব্যবসা শুরু করতে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত লোন দেবে

SSY অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য ব্যাঙ্কের তালিকা

সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনার অধীনে অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য ব্যাঙ্কগুলির তালিকা নীচে দেওয়া হল। আপনি এই সমস্ত ব্যাঙ্কগুলির নিকটতম শাখায় গিয়ে আপনার কন্যা সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য একটি SSY অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন।

  • স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া।
  • পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক।
  • ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া।
  • ব্যাঙ্ক অফ বরোদা।
  • ব্যাঙ্ক অফ মহারাষ্ট্র।
  • এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক।
  • পাঞ্জাব ও সিন্ধু ব্যাঙ্ক।
  • ইউনিয়ন ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া।
  • ইউকো ব্যাংক।
  • বিজয় ব্যাংক।
  • ব্যাঙ্ক অফ মহারাষ্ট্র।

Leave a Comment